খালেদাকে কারাগারে পাঠানোর পর যা বললেন ফখরুল

জাতীয়
Share Button

খালেদাকে কারাগারে পাঠানোর পর যা বললেন ফখরুল

গুরুতর অসুস্থ বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে জোর করে আদালতে বসিয়ে রেখে কষ্ট দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বৃহস্পতিবার পুরনো ঢাকার নাজিম উদ্দীন রোডের পুরনো কারাগারের সামনে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ। তাকে জোর করে আদালতে বসিয়ে রেখে কষ্ট দেয়া হচ্ছে। এটি অমানবিক। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।’

‘‘হাসপাতাল থেকে কোনো প্রকার ছাড়পত্র না নিয়ে খালেদা জিয়াকে কারাগারের ভেতরে আদালতে নিয়ে আসা হয়েছে। তিনি অত্যন্ত অসুস্থ। হুইল চেয়ারেও ভালোভাবে বসতে পারছেন না।’’

বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন দুর্নীতির দুই মামলায় দণ্ড পাওয়া খালেদা জিয়াকে কারাগারে নেয়া হয়।

তার আগে তাকে হুইল চেয়ারে করে বিএসএমএমইউ-এর কেবিন ব্লক থেকে নামিয়ে আনা হয়। তার ব্যবহৃত জিনিসপত্রও কারাগারে নেয়া হয়।

বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) পরিচালক আব্দুল্লাহ আল হারুনের দাবি, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। তাই যথাযথ চিকিৎসা শেষে হাসপাতালের ছাড়পত্র দিয়েই তাকে কারাগারে ফেরত পাঠানো হয়।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিচারিক আদালতের রায়ের পর থেকে রাজধানীর নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দী ছিলেন খালেদা জিয়া।

তবে গত ৬ অক্টোবর চিকিৎসার জন্য তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়। তারপর থেকে সেখানেই চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

Share Button

Leave a Reply