সমালোচকদের বিরুদ্ধে ‘টুইটার সেনা’ মোতায়েন করেছে সৌদি আরব

আলোচিত সংবাদ
Share Button

সমালোচকদের বিরুদ্ধে ‘টুইটার সেনা’ মোতায়েন করেছে সৌদি আরব

ভিন্নমতাবলম্বী সাংবাদিক জামাল খাশোগির মতো অন্যান্য টুইটার সমালোচকদের মোকাবিলা করার জন্য অনলাইন সেনা মোতায়েন করেছে সৌদি আরব। গত শনিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে নিউইয়র্ক টাইমস।

নিউইয়র্ক টাইমসের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সৌদি শাসনতন্ত্রের বিরুদ্ধে জনমত প্রকাশের চেষ্টাকে নস্যাৎ করে দিতে খাশোগি ও অন্যান্য নাগরিকদের আক্রমণে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্টে নজরদারির জন্য রিয়াদ ভিত্তিক তথাকথিত একটি ‘ট্রল ফার্ম’ এবং টুইটারে একজন সন্দেহভাজন গুপ্তচরকে নিয়োগ দেয় দেশটির সরকার।

এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেনি টুইটার। এছাড়া বিষয়টি নিয়ে ওয়াশিংটনে অবস্থিত সৌদি দূতাবাসের এক প্রতিনিধির সঙ্গে কথা বলতে চাইলে, তিনিও কোনো জবাব দেননি।

গত শনিবার সৌদি কর্মকর্তারা জানান, ওয়াশিংটন পোস্টের কলামিস্ট জামাল খাশোগি ইস্তাম্বুলের সৌদি দূতাবাসে এক লড়াইয়ে নিহত হয়েছেন। তবে তুরস্কের কর্মকর্তারা বলছেন, সৌদি আরবের নিরাপত্তা বাহিনীর একদল সদস্য খাশোগিকে হত্যার পর তার লাশ টুকরো টুকরো করে ফেলেছে।

মার্কিন ও সৌদি কর্মকর্তাদের উদ্ধৃতি দিয়ে দ্য টাইম এক প্রতিবেদনে জানায়, সমালোচকদের হয়রানি করতে ২০১০ সালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম প্রচারণা শুরু করে সৌদি আরব। আর এই প্রচেষ্টার নেপথ্যে ছিলেন যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানে উপদেষ্টা সৌদ আল-কাহতানি।

সৌদ আল-কাহতানি হচ্ছেন সেই পাঁচ ব্যক্তির একজন, খাশোগি নিখোঁজের পর বিশ্বব্যাপী সমালোচনার মুখে যাদের চাকরিচ্যুত করেন সৌদি বাদশাহ সালমান।

সূত্রঃ রয়টার্স, ওয়াশিংটন

Share Button

Leave a Reply