তাহলে কি আওয়ামিলীগকে খুশি করতেই কি তারা জামায়াতের বিরোধিতা করেন ?

ফেইসবুক থেকে
Share Button

তাহলে কি আওয়ামিলীগকে খুশি করতেই কি তারা জামায়াতের বিরোধিতা করেন ?

“যদি মনে করেন ছাত্রলীগ, আওয়ামী লীগ আমাদের দুশমন, তাহলে ভুল হবে।” – আহমাদ শফী (দা বা)।

“ছাত্রলীগের সাথে আমাদের কোন দুশমনি নেই, আমাদের আদর্শিক দুশমন হচ্ছে জামায়াত শিবির-চরমোনাইর নেতৃবৃন্দ”

“জামায়াত শিবির হচ্ছে উম্মাহর ক্যান্সার, তাদের দমনে বাধা গ্রস্ত করাও (শাহবাগ বিরোধী হওয়া) হারাম- জমিয়ত নেতা ফরিদ উদ্দিন মাসউদ”

মাত্র তিনটি উদাহারন দিলাম। এসব বক্তব্য বিবৃতি শুনার পরে যখন আবেগী কোন এক জামায়াত শিবিরের কর্মী ঐসব ব্যক্তিবর্গের ব্যাপারে নেতিবাচক কোন মন্তব্য বা লেখা পোষ্ট করে, অমনি আমাদের কওমী ঘরনার ফেবু সেলিব্রেটিদের কলম স্টেনগানের মতো গর্জে উঠে এবং জামায়াত শিবিরকে কওমী বিরোধী, কওমীর দুশমন, সাথে সাথে ফ্রি বেয়াদবীর লকব উপহার দিয়ে নিজেদের অন্য এক উচ্চতায় নিয়ে যান।

তারা প্রায় বলে থাকেন আমরা মু’তাদিল হবো, মানুষের সাথে সাম্যের কথা বলবো। কিন্তু আমলের ক্ষেত্রে দেখা যায় তার বিপরিত। মনে হচ্ছে, আলেম হিসেবে সম্মানের ষোল আনা তাদের জন্য আল্লাহ পাক বরাদ্দ রেখেছেন। তারা নিজেদের ছাড়া অন্য কারো ইলম, আমল আর পজিশানের কোন মুল্যায়ন করতে চান না।

সম্মান পেতে হলে অন্য কে সম্মান করা শিখতে হবে। আপনি অন্যকে মিথ্যা তোহমদের ভিত্তি অসম্মান করবেন অতঃপর কোরআন হাদিস দেখিয়ে সম্মানের ষোল আনা নিজের জন্য বরাদ্ধ করার প্রয়াস পাবেন এটা তো অসম্ভব ব্যাপার। ডিজিটাল এই যুগে এসব নোংরামী চলে না।

আগে হয়তো চলতো, দারসের মজলিশে তালেবে ইলমের সামনে মিথ্যা তথ্য নির্ভর হাওলা পেশ করে বহুলোককে মুহুর্তে্র মধ্যেই কাফের প্রমানে সক্ষম হয়েছেন, প্রতিবাদ করার মতো কেউ ছিলো না।
কিন্তু এখন যুগ পাল্টেছে, মানুষ মানুষের পুজা থেকে নিজেদর আযাদ করে নিচ্ছে।

অবাঞ্চিত, অযাচিত কিছু বললে আপনার পজিশানকে খাটো করে নিজেকে মাটিতে নামিয়ে আনবেন। এর দায়ভার কোন সংগঠনের ঘারে চাপানোর আগে নিজের জবানকে সংযত করুন। বনী ইসরাইলের ওলামা, রাহবার নামধারী ধর্ম ব্যবসায়ীরা নিজেদের স্বার্থে ফতোয়ার এন্টেনা যখন তখন ঘুরাতো, সেই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে থাকলে এখুনি চিকিৎসা করিয়ে নিন।

নইলে হাশর হবে ওদের সাথে, কারো দেওয়া খেলাফত আপনার হাশরের পজিশানকে পরিবর্তন করতে পারবে না। ইনসাফ করুন, ন্যায়পরয়ানতার সাথে সত্যের স্বাক্ষ্য দিন। আল্লাহ কিন্তু ঘুষ খান না।

Apu Ahmed এর ফেসবুক ষ্ট্যাটাস থেকে ……

Share Button

Leave a Reply