হে আল্লাহ্‌, আমাদের প্রধানমন্ত্রীকে পুনরায় নির্বাচিত করে দাও, বারবার ক্ষমতায় আসীন কর। মুফতী কেফায়েতুল্লাহ শফী

ফেইসবুক থেকে
Share Button

হে আল্লাহ্‌, আমাদের প্রধানমন্ত্রীকে পুনরায় নির্বাচিত করে দাও,
বারবার ক্ষমতায় আসীন কর।

হে আল্লাহ্‌ তুমি দয়া করে মায়া করে মেহেরবানী করে শেখ হাসিনাকে দীর্ঘায়ু দান কর, নিরাপত্তার জীবন দান কর, বাংলাদেশকে আরো উন্নত করার তাওফিক দাও আল্লাহ্‌।

আয় আল্লাহ্‌, আবার শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করে বাংলাদেশের মানুষের চেহারা উজ্জ্বল করে দাও আল্লাহ্‌।

হে আল্লাহ্‌, আমাদের সকলের প্রাণের স্পন্দন, উখিয়া-টেকনাফের নয়নের মণি, গরীব দুঃখী মেহনতি মানুষের অন্যতম সেবক, আল্লাহ্‌ দুই দুইবার নির্বাচিত মাননীয় সংসদ সদস্য, আমাদের প্রাণপ্রিয় নেতা, আলহাজ্জ আব্দুর রহমান বদিকে তুমি দয়া কর আল্লাহ্‌। আল্লাহ্‌ তুমি মেহেরবানীর ফায়সালা করে দাও।

ইজ্জতের মালিক তুমি আল্লাহ্‌, তুমি আবার ইজ্জতের ব্যবস্থা করে দাও।
আমাদের আলহাজ্জ আব্দুর রহমান বদিকে ভাইকে আরো ইজ্জত বাড়িয়ে দাও।

হে আল্লাহ্‌ তুমি তাকে বঙ্গোপসাগরের মত একটি হৃদয় দান করেছ, সবাইকে নিজের মত করে ভালোবাসে, কোন ভেদাভেদ করেন নাই, সবাইকে অন্তর দিয়ে ভালোবাসে। আল্লাহ্‌ তুমি তাকে দয়া কর, তুমি তাকে মেহেরবানী কর। তাকে আবার নির্বাচিত করে দাও।

দোয়া পরিচালনা করেছেন,
টেকনাফ আল জামিয়া আল ইসলামিয়া মাদ্রাসার প্রধান পরিচালক,
মুফতী কেফায়েতুল্লাহ শফী সাহেব দামাতবারাকুতুহুম।

কিছু কথা- আপনি আমিন বলবেন কি বলবেননা সেটা আপনার ব্যাপার। আলেম ওলামার আওয়ামী প্রীতি দেখে মনে হচ্ছে, আমাদের প্রধানমন্ত্রী আসলেই ভাগ্যবান। তিনার জন্য ওলামায়ে কেরাম যেভাবে দোয়া করছে, কামিয়াবী আশা করছে, বডিগার্ড হিসেবে পাশে থেকে জীবনের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে প্রতিহত করার হুংকার ছেড়েছে, তাতে আমাদের প্রধানমন্ত্রীর কেউ কোন ক্ষতি করতে পারবেনা। তিনি ভাগ্যবান, তিনার সাথে ওলামাদের দোয়া আছে। তিনি একজন মমতাময়ী আবেদী পরহেজগারী ইসলামের সেবক, আলেম ওলামার আপনজন আর কেউই নাই, তিনিই পারবেন ইসলাম ও দেশ রক্ষা করতে।
শুধু বুঝলোনা চরমোনাইওালারা।

সব ওলামারা তার গুণকীর্তন গাইতে শুরু করেছে, তাকে আবার ক্ষমতায় আসার জন্য পথ তৈরি করে দিচ্ছে, মসজিদ মাদ্রাসা খানকা থেকে দরদ আর আবেগ দিয়ে দোয়া করছে, তিনি আবার পাশ করবেন, তিনি আবার নির্বাচিত হবেন। দেশের শীর্ষ মুরুব্বী থেকে শুরু করে, মুরুব্বীদের সাহেবজাদারাও গাড়ি বহর নিয়ে জানিয়ে দিচ্ছেন, আপনিই আগামী দিনের কান্ডারী, আপনিই ইসলাম ও মুসলমানের ইজ্জত আব্রুর হেফাজতকারী।

নারী নেতৃত্ব হারাম এই কথাটা ফিকে হয়ে আসছে। এদেশে নারী নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠায় জনগণ নয়, ওলামারাই এগিয়ে। তাদের দরদমাখা দোয়া আল্লাহ্‌ ফিরিয়ে নিতে পারেননা। একমাত্র চরমোনাইওয়ালারা কোন নারীর সাথে, নাস্তিকদের সাথে, বামদের সাথে মিলিত হতে পারলোনা, বুঝলোনা রাজনীতি, শুধু হক হক করেই গেল। আয় আল্লাহ্‌ এ চরমোনাইওয়ালারা না থাকলে কি হত দেশে এখন বুঝছি।

আগে হিসেব করতাম ৭৩ এর ভিতর ৭২ ফিরকা জাহান্নামে যাবে, সেই ৭২ ফিরকা কই? আর একগ্রুপ যাবে জান্নাতে তাঁরা কই? ভোটের আগে হিসেব মিলতে শুরু করেছে, ৭২ এখন মুখস্ত বলতে পারব।

সূত্র””২০ দলীয় ঐক্যজোট, সিলেট বিভাগ।

Share Button