‘ইউনাইটেড নিয়ে নিশ্চয় জামাত-বিএনপির কু-মতলব আছে’

রাজনীতি
Share Button

কারাবন্দী বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসা কেন শুধু ইউনাইটেড হাসপাতালেই করতে হবে? এ নিয়ে অবশ্যই জামাত-বিএনপির কোনো কু-মতলব আছে বলে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রীর উপপ্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন।

বৃহস্পতিবার ফেসবুকে নিজের আইডি থেকে দেয়া এক স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন,

‘বেগম জিয়ার চিকিৎসা ইউনাইটেড হসপিটালেই করতে হবে। বিএনপি নেতারা কিছুদিন ধরে এই চিৎকারই করে যাচ্ছেন। কেন ইউনাইটেড হাসপাতালই হতে হবে অন্য হসপিটালে নয় কেন – এর কোনো যুক্তি তারা দিচ্ছেন না।

প্রথমত: বেগম জিয়া একজন কারাবন্দি, তার চিকিৎসা এবং নিরাপত্তার দুইটারই দায়িত্ব সরকারের। এইখানেই বন্দি কিংবা তার লোকজনদের কোনো ইচ্ছার মূল্য নেই। কারণ চিকিৎসারত অবস্থায় বন্দির কোনো প্রকার সমস্যা হলে সবাই সরকারকেই দায়ী করবে। সুতরাং সরকারই ভালো বুঝবে কোথায় নিরাপত্তাসহ চিকিৎসা দেয়া যাবে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে না হয় বুঝলাম নামের কারণে ওনাদের সমস্যা কিন্তু সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ( সিএমএইচ) সমস্যা কি। বেগম জিয়া তো সারাজীবন বিদেশে অথবা সিএমএইচেই চিকিৎসা করেছেন। তাহলে এখন সমস্যা কেন ??

চিকিৎসার মানের দিক থেকেও এখনো এই হাসপাতালগুলোকে কোনো বেসরকারি হাসপাতাল অতিক্রম করতে পারেনি।

তারা শুধুমাত্র ইউনাউটেড হাসপাতালেই বেগম জিয়ার চিকিৎসা করতে চাচ্ছেন, অন্য কোথাও নয়- এর মানে নিশ্চয়ই এইখানেও জামাত-বিএনপির কোনো কু-মতলব আছে।’

উৎসঃ purboposhchim

খালেদার শারীরিক অবস্থা নিয়ে নতুন ইস্যু খুঁজছে বিএনপি : ওবায়দুল কাদের

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে নতুন ইস্যু খুঁজছে বিএনপি। বিএনপির নেতাকর্মীরা বলেছেন, খালেদা মাইল্ড স্ট্রোক করেছেন। কিন্তু কারাগারের চিকিৎসকরা বলেছেন, তার সুগার প্রবলেম হয়েছে। তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে নতুন ইস্যু খুঁজছে বিএনপি।

বৃহস্পতিবার (১৪ জুন) দুপুরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার ময়নামতি এলাকায় সড়ক পরিদর্শনকালে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের একথা বলেন।

**খালেদা সিএমএইচে নির্ভর করতে পারেন না কেন: কাদের

কাদের বলেন, কারাগারের ভেতর খালেদা জিয়াকে সব ধরনের চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে। সাবেক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে কারাগারে সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছেন তিনি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রস্তাব দিয়েছেন খালেদাকে সিএমএইচ হাসপাতালে চিকিৎসা প্রদানের জন্য। কিন্তু তিনি সেখানে যেতে চান না। সিএমএইচ হাসপাতালের উপর তাদের কোনো আস্থা নেই।

মন্ত্রী বলেন, বিএনপি সব ধরনের আন্দোলনের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়েছে। গত সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করে সারাদেশে জ্বালাও, পোড়াও করে। তারা ৯ বছরে ৯ মিনিট আন্দোলন করতে পারেনি। তাদের আন্দোলনে জনগণ সায় দেয়নি।

ঘরমুখো মানুষের এবারের ঈদযাত্রা অনেক ভালো জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, কুমিল্লার ময়নামতি থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার ধরখাড় পর্যন্ত ৫৮ কিলোমিটার সড়কে ৫ হাজার ৬৯০ কোটি টাকা ব্যয়ে চার লেন সড়ক আগামী সরকারের মেয়াদে শুরু হতে যাচ্ছে। এবারের ঈদযাত্রায় কোথাও কোনো যানজট নেই।

পরিদর্শনকালে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

sonarbangla24

Share Button